Home / পৌরসভা / সীতাকুণ্ড পৌর নির্বাচন : আলোচনার শীর্ষে ৫ সাংবাদিক

সীতাকুণ্ড পৌর নির্বাচন : আলোচনার শীর্ষে ৫ সাংবাদিক

স ম হাসানঃ

তফসিল ঘোষণা হয়েছে ২২ নভেম্বর। হাতে গোনা মাত্র ত্রিশ দিন পর সীতাকুণ্ড পৌরসভা নির্বাচন। মেয়র ও ৯টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ইতিমধ্যে অর্ধশতাধিক প্রার্থী মনোনয়নপত্র ক্রয় করেছেন। সরকারী দল আওয়ামী লীগ ও বিরোধী বড় রাজনৈতিক দল বিএনপির মধ্যে এখনও চলছে মেয়র পদে প্রার্থী বাছাইয়ের তোড়জোড়।

তবে এরই মধ্যে সবকিছু ছাপিয়ে সীতাকুণ্ডের প্রধান আলোচনায় পৌরসভার বাসিন্দা ৫ সাংবাদিক। যারা ইতিমধ্যে মেয়র ও কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র ক্রয় করেছেন বা করার অপেক্ষায় রয়েছেন। সংবাদ মাধ্যম ও সোশ্যাল মিডিয়ায়ও যাদেরকে নিয়ে প্রার্থী প্রচারণা তুঙ্গে।

এদিকে রীতিমত হৈ চৈ ফেলে দিয়েছেন সীতাকুণ্ড প্রেস ক্লাবের সহ-সভাপতি সাংবাদিক জহিরুল ইসলাম। নাগরিক কমিটির ব্যানারে এই সাংবাদিক সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী হিসাবে প্রচারণা চালিয়ে আসছেন দীর্ঘদিন ধরে। তফসিলের পর আওয়ামী লীগ ও বিএনপি যখন প্রার্থী নির্বাচনে ব্যস্ত তখন জহিরুল ইসলাম মেয়র পদে মনোয়নপত্র ক্রয় করে অভাবনীয় সাড়া জাগিয়েছেন।

বিশেষ করে দীর্ঘ ৩৫ বছর সীতাকুণ্ডে সাংবাদিকতার পাশাপাশি হাস্যোজ্জল ও অন্তরঙ্গ স্বভাবের কারনে সাধারণ মানুষের কাছে তার ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে। এছাড়া সম্ভাব্য মেয়র পদে ইতিমধ্যে তার অসাধারণ পরিকল্পনার কথা তুলে ধরে আলোড়ন তুলেছেন সাংবাদিক জহিরুল ইসলাম।

অন্যদিকে ৯ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রার্থীতা ঘোষণা করেছেন সাপ্তাহিক বহমান বাংলার সম্পাদক, কবি ও কলামিস্ট আতাউল হাকিম আরিফ। যেখানে একই সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন দৈনিক ইত্তেফাক প্রতিনিধি ও সীতাকুণ্ড প্রেস ক্লাবের সদস্য দিদার হোসাইন টুটুল।

পাশাপাশি ৮ নং ওয়ার্ড থেকে ইতিমধ্যে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন সীতাকুণ্ড প্রেস ক্লাবের সহ সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন অনিক।

আবার ৪ নং ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর পদে প্রার্থী হতে ব্যাপক প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী মিঠু।

এদিকে সহকর্মীদের নির্বাচনে প্রার্থীতায় উৎসাহ যোগাচ্ছেন স্থানীয় সাংবাদিকরা। তাদের মতে, সাংবাদিকরা জাতির পথ নির্দেশক। তারা ক্ষুরধার লেখনীর মাধ্যমে যেমন জাতিকে সঠিক দিকনির্দেশনা দেয় তেমনি জনপ্রতিনিধি হয়ে নিষ্ঠার সাথে জনসেবাকে জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছাতে পারবে।

অন্যদিকে সাংবাদিকদের অধিক হারে জনপ্রতিনিধি হতে এগিয়ে আসাকে উৎসাহব্যাঞ্জক মনে করছেন পৌর বাসিন্দারা।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: