Home / ইউনিয়ন / সোনাইছড়ি / ১৪ বছর পর আশার আলো দেখছে সোনাইছড়িবাসী,বেড়িবাঁধ সংস্কার কাজ শুরু

১৪ বছর পর আশার আলো দেখছে সোনাইছড়িবাসী,বেড়িবাঁধ সংস্কার কাজ শুরু

সাপ্তাহিক সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি
সুদীর্ঘ ১ যুগের বেশি সময় পর আশার আলো দেখছেন উপজেলার সোনাইছড়ি ইউনিয়নের জনসাধারণ ।অবশেষে  এই ইউনিয়নের সমুদ্র উপকূলীয় এলাকায় চারশত মিটার বেড়িবাঁধের সংস্কার কাজ শুরু করেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।যার ব্যয় ধরা হয়েছে ১৭ লক্ষ টাকা।
বর্ষা মৌসুম ও বৃষ্টি বাদলের দিনে জোয়ারের পানি  ঢুকে পড়ে লোকালয়ে। ফলে ওই ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামের জনসাধারণ চরম ভোগান্তিতে পড়তো।পানিবন্দি হয়ে পড়তো কয়েক হাজার মানুষ। সাগরের লবনাক্ত পানি ঢুকে পড়ায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়।গৃহপালিত পশুসহ শস্য ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতিসহ ঐ এলাকার বাসিন্দাদের জীবনে অভিশাপ হয়ে দাঁড়িয়েছিলো ভাঙা বেড়িবাঁধ। গলার কাঁটা হয়ে বসা সেই বেড়িবাঁধটি অবশেষে সংস্কার শুরু করেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।
জানা যায়, সীতাকুণ্ড উপজেলার সোনাইছড়ি ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ ঘোড়ামরা (পাক্কা মসজিদ) এলাকায় চারশত মিটার বেড়িবাঁধ ভেঙে যায়। প্রতিবছর প্রশাসনের উদ্ধতন কতৃপক্ষ মেরামতের  নানা আশ্বাস দিলেও বাস্তবায়ন হয়নি মোটেও।
সর্বশেষ স্থানীয় সাংসদ  দিদারুল আলম, উপজেলা চেয়ারম্যান এস.এম আল মামুন এবং জেলা পরিষদের সদস্য আ.ম.ম দিলসাদের সহযোগীতায় উক্ত বেঁড়িবাধ সংস্কারের কাজ শুরু হয়েছে।
এ বিষয়ে  চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য  আ ম ম দিলসাদ বলেন, ঘোড়ামরা গ্রাম প্রতিরক্ষা বাঁধ নির্মাণ নামে একটা প্রকল্প জেলা পরিষদে টেন্ডার প্রক্রিয়ায় রয়েছে।এছাড়াও সংসদ সদস্যের মাধ্যমে একটা চাহিদাপত্র পানি ও বন্যা নিয়ন্ত্রণ মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী বরাবরে প্রদান করা হয়। সেই চাহিদাপত্র মোতাবেক পানি উন্নয়ন বোর্ড যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে এই সংস্কার কাজ শুরু করে।

বেড়িবাঁধ পরিদর্শনে জেলা পরিষদ সদস্য আ ম ম দিলসাদ
সংস্কার কাজ পরিদর্শন করছেন আ ম ম দিলসাদ

তিনি আরো বলেন আম্ফান,আইলা থেকে শুরু করে প্রতিটা প্রাকৃতিক দুর্যোগের প্রভাবে বসত বাড়িতে পানি ঢুকে তলিয়ে যেতো বসত ঘর, জলাবদ্ধতায় ভাসতো ফসলের মাঠ। এতে করে উপকূলে থাকা মানুষগুলোর চিন্তার কোন অন্ত ছিলো না। সেই থেকে বেঁড়িবাধ এর পাশে প্রায় ৫০০ একর জমিতে থাকা ফসল মালিকরা থাকতো চরম আতঙ্কে। দীর্ঘ ১৪ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে কাজ শুরু হয়েছে। এতে খুশি এলাকার হাজারো জনসাধারণ

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: